Justice Manik attacked in London

London, June 27 (bdnews24.com)

Unidentified Bengali youths assaulted Justice A H Shamsuddin Chowdhury near his London home on Wednesday, the judge, now on a personal visit to UK, said.

The Supreme Court judge told bdnews24.com that two youths approached him near his home in Becontree, East London, and hit him in his head with a paper file at around 8pm Wednesday (1am Thursday BdST).

Manik violated constitution:Speaker

Four top jurists hail Speaker

“They ran away when I cried for help,” Chowdhury told bdnews24.com. “I called police and gave them the car registration number.”

Chowdhury said, while he was on his way back home from a nearby gymnasium, a couple of Bengali youths came up to him and sought confirmation of his identity. He said several other youths were waiting in a car apparently to take snaps of the upcoming incident.

He said when he shouted for help, the youths hit him with a file and escaped.

Chowdhury went to the UK on Saturday on a personal visit.

 

লন্ডন, জুন ২৭ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

লন্ডনে বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিকের ওপর হামলা চালিয়েছে অজ্ঞাত পরিচয় দুই বাঙ্গালি যুবক।

বুধবার স্থানীয় সময় রাত ৮টার দিকে (বাংলাদেশ সময় রাত ১টা) ব্যায়ামাগার থেকে পূর্ব লন্ডনের বিকনট্রি এলাকায় নিজের বাসায় ফেরার পথে হামলার শিকার হন হাইকোর্টের এই বিচারপতি। দুই যুবক তার মাথায় কাগজের ফাইল দিয়ে আঘাত করে। পরে তার চিৎকারে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

বিচারপতি শামসুদ্দিন বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমাকে ভয় দেখানোর জন্যই এই হামলা চালানো হয়েছে।”

তিনি জানান, ব্যায়ামাগার থেকে বাসার কাছে পৌঁছানোর পর এক যুবক এসে জানতে চান তিনি বিচারপতি মানিক কি না। তিনি ‘হ্যাঁ সূচক’ জবাব দেওয়ার পর আরেক যুবক সেখানে এসে দাঁড়ায়।

“আমি তখন দেখতে পাই, পাশে একটি গাড়িতে আরো দুই-তিনজন যুবক বসে আছে এবং তারা ছবি তুলছে।”

এ সময় ‘বিপদ’ আঁচ করতে পেরে এই বিচারপতি সাহায্যের জন্য চিৎকার শুরু করলে দুই যুবক তাদের হাতে থাকা কাগজের ফাইল দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে গাড়িতে উঠে চলে যায়।

বিচারপতি শামসুদ্দিন জানান, হামলাকারীদের গাড়ির নম্বর তিনি পুলিশকে দিয়েছেন। লন্ডন পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করবে বলে জানিয়েছে।

ব্যক্তিগত সফরে গত শনিবার লন্ডনে আসেন বিচারপতি শামসুদ্দিন। আরো কিছুদিন যুক্তরাজ্যে থাকবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ মামলায় রায় দিয়ে পরিচিত হয়ে ওঠা এই বিচারপতির অপসারণ চেয়ে সম্প্রতি এক আইনজীবী রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন করেন। আদালতে স্পিকারকে নিয়ে শামসুদ্দিন চৌধুরীর একটি বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় কয়েকজন সংসদ সদস্যও সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠন করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।

তবে স্পিকার অ্যাডভোকেট আবদুল হামিদ সংসদে রুলিং দিয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তির দায়িত্ব প্রধান বিচারপতির হাতে ছেড়ে দিয়েছেন।