Hasina says BNP may join interim government

The Daily Star Online July 30, 2012

Prime Minister Sheikh Hasina has said BNP can join the interim cabinet which would be formed ahead of the next general elections.

The premier made the comment during an interview with BBC Bangla published on its website late July 29.

“They (BNP) can table a proposal in the parliament on this issue and we together can form a small cabinet and hold the election,” said the prime minister.

Hasina further said that she would not impose her decision on her party men about who would lead Awami League after her.

“Awami league believes in democracy, everyone in the party accepts the decision that Awami League takes,” said the premier.

 

ঢাকা, জুলাই ৩০ (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

তত্ত্বাবধায়ক সরকার পদ্ধতি পুনর্বহালের দাবি প্রত্যাখ্যান করে আসা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনকালে বিরোধী দলের সমন্বয়ে সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়েছেন।

আগামী নির্বাচন নিয়ে দেশে রাজনৈতিক সঙ্কটের শঙ্কার মধ্যে লন্ডনে বিবিসি বাংলা সার্ভিসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আওয়ামী লীগ প্রধান এই প্রস্তাব তুলে ধরেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “নির্বাচনের সময় সরকার গঠনে তারা (বিরোধী দল) যদি অংশীদারিত্ব চায় সেটা আমরা দিতে পারি।

“সবাই মিলে আমরা (নির্বাচন) করতে পারি। তখন একটা ছোট মন্ত্রিসভা করে ইলেকশন করতে পারি।”

এজন্য বিএনপিকে সংসদে এসে প্রস্তাব দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

গত বছরের ৩০ জুন সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর মাধ্যমে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বাতিল করা হয়, যা ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের দাবির মুখে সংবিধানে সংযুক্ত হয়েছিল।

সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর পর থেকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলন করে আসছে বিএনপিসহ বিরোধী দল।

বিরোধী দলের যুক্তি, দলীয় সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে না। অন্যদিকে বিগত সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের শাসনকালের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে সরকারি দলের বক্তব্য, অনির্বাচিতদের হাতে আর ক্ষমতা দেওয়া যায় না।

আওয়ামী লীগে পরবর্তী নেতৃত্ব নিয়েও বিবিসির প্রশ্নের মুখোমুখি হন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, তার পরে আওয়ামী লীগের নেতা কে হবেন সে সিদ্ধান্ত তিনি দলের ওপর চাপিয়ে দেবেন না।

“বাংলাদেশ ‘আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। আওয়ামী লীগ যেভাবে সিদ্ধান্ত নেবে সেভাবে হবে।”