ধর্মের বিরুদ্ধে এত লেখালেখি করেন কেন? ধর্ম ছাড়া আর কোন বিষয় নাই?

জনৈক: আপনি ধর্মের বিরুদ্ধে এত লেখালেখি করেন কেন? ধর্ম ছাড়া আর কোন বিষয় নাই?

আমি: কি নিয়ে লিখবো সে ব্যাপারে একটা লিষ্ট দেন, আপনার পছন্দমাফিক লিখতে পারি কিনা দেখি!

জনৈক: এই যেমন ধরুন, দেশের দূর্নীতি, সন্ত্রাস, ধর্ষণ, শিক্ষা-ব্যাবস্থা, নারী অধিকার.. এসব বিষয় নিয়ে লিখতে পারেন।

আমি: ভাল বলেছেন, আপনি তো দূর্নীতি দেখেন; আমি দেখি দূর্নীতির পিছনে ধর্মীয় কারন। আপনি শুধু সন্ত্রাস আর ধর্ষণ দেখেন, আমি দেখি ধর্ম কিভাবে এই ব্যাপারগুলোকে প্ররোচিত করে। আর ধর্মে নারী অধিকার বলতে কোন বিষয়ই নাই। নারীরা শস্যক্ষেত্র, স্বামীর সেবা করবে আর বাচ্চা জন্ম দেবে। নারীরা ঘরে থাকবে; যেন আপনার মোহর দিয়ে কেনা স্ত্রীকে বাজারে পরপুরুষেরা ধাক্কা দিতে না পারে।
দেশের রাজনীতির দিকে তাকান, মদীনা সনদের কথা বলে মানুষকে বোকা বানানো হচ্ছে। দিনের পর দিন ধর্মের নামে মানুষ খুন হচ্ছে, তখনতো আপনি নিজে কিছু লেখেন না। অাপনার প্রোফাইলে গেলে শুধু নেত্রীর প্রসংশা আর দলীয় নেতাদের তোষামোদী করা পোষ্ট। কই আমি তো কোনদিন বলিনা, আপনি কোন বিষয়ে লিখবেন আর কোন বিষয়ে লিখবেন না। আমাকে নিয়ে আপনার এত মাথাব্যথা কেন? আমার লেখা পড়তে চান না, ইগনোর করেন, আনফলো করেন। তাও যদি আপনার সন্তুষ্টি না হয়, তাহলে আনফ্রেন্ড করেন, ব্লক করেন। তবু আমার ব্যাক্তিগত স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে আসবেন না। আমি আপনার দরজায় কড়া নেড়ে আমার লেখা পড়তে বাধ্য করছি না।
আমার প্রোফাইলে আমি স্বাধীন। এত বছর বিদেশে থাকার পরও যদি এ শিক্ষাটা না হয়ে থাকে, তাহলে বুঝতে হবে আপনি মত প্রকাশের স্বাধীনতার মানে বোঝেন না। এমনকি নিজেও স্বাধীনভাবে মতপ্রকাশ করার মতো সাহস অর্জন করেন নাই।

By Farzana Kabir Khan Snigdha