সাম্প্রদায়িক হামলার উস্কানীতে বাংলাদেশের বৌদ্ধরা আতংকে

১. বাংলাদেশে ‘সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা’ বলে কিছু নেই ৷ দাঙ্গা বলা হয় তখনই যখন দুইপক্ষ পরস্পরের সাথে সংঘর্ষে লিপ্ত হয় ৷ এখানে যা হয় তা হলো, একপক্ষ সংঘবদ্ধ হয়ে সংখ্যালঘু হিন্দু, বৌদ্ধ বা আদিবাসীদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে, মন্দির প্যাগোডা ঘরবাড়ি পুড়িয়ে দেয়, লুটপাট করে, খুনজখম করে, নারীদের ধর্ষন করে ৷ সুতরাং ‘দাঙ্গা’ না বলে বলুন সাম্প্রদায়িক হামলা ৷

২. গত কয়েকদিন ধরে মিয়ানমারে কথিত রোহিঙ্গা নির্যাতনের সূত্র ধরে বাংলাদেশের সংখ্যালঘু বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের উপর সাম্প্রদায়িক হামলার পরিকল্পনা করা হচ্ছে ৷ সংবাদমাধ্যমগুলো থেকে সমসাময়িক রোহিঙ্গা নির্যাতন বিষয়ে কোন নির্ভরযোগ্য তথ্য পাওয়া না গেলেও ফেসবুকের কল্যানে রোহিঙ্গা সংক্রান্ত অসংখ্য ভূঁয়া নিউজ, ছবি ও ভিডিওচিত্র ছডিয়ে পড়েছে ৷ রোহিঙ্গা সমস্যা মিয়ানমারের পুরোনো সমস্যা ৷ রোহিঙ্গাদের সাথে বার্মার বৌদ্ধদের সমস্যা থাকতে পারে, বাংলাদেশের বৌদ্ধদের কোন সমস্যা বা যোগসূত্র নেই ৷ এমনকি মিয়ানমারের বৌদ্ধদের সাথে বাংলাদেশি বৌদ্ধদের ক্ষীনতম যোগাযোগটিও নেই ৷ বাংলাদেশের সবগুলি বৌদ্ধকে মেরে ফেললেও রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান হবে না ৷

৩. আপনারা যারা স্ট্যাটাসটি পড়ছেন সবার কাছে অনুরোধ থাকবে, যাচাই না করে কোন নিউজ, ছবি বা ভিডিও শেয়ার করা থেকে নিজে বিরত থাকুন, অন্যকে নিরুৎসাহিত করুন ৷ উস্কানিমুলক পোস্ট দেখলে রিপোর্ট করুন, আনফ্রেন্ড করুন, ব্লক করুন ৷

৪. বৌদ্ধ বন্ধুদের প্রতি পরামর্শ, সতর্ক থাকুন ৷ পাড়ায় মহল্লায় পাহারা বসান ৷ জানি সাহায্য পাওয়ার আশা কম তাও বলি, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবহিত করুন, নয়তো পরে সংবাদ সম্মেলন ডেকে মুখপাত্র বলবে – আমাদেরকে অবগত করা হয়নি ৷ ঢাকায় যারা আছেন তারা, সরকারের বড়কর্তাদের সাথে নিরাপত্তা চেয়ে স্মারকলিপি টারকলিপি দিতে পারেন ৷ পারলে চীন, জাপান, থাইল্যান্ড, কোরিয়া ইত্যাদি নানান দেশের দুতাবাসকে অবহিত করুন৷ সবচেয়ে ভাল হয়, এই দেশ ছেড়ে অন্য যে কোন দেশে পালাতে পারলে৷ এদেশে সংখ্যালঘুদের ভবিষ্যৎ অমাবশ্যার রাতের মতোই অন্ধকার৷

By Kungo Thang